মুলাদীর আড়িয়াল খাঁ নদীর ভাঙ্গন বেড়েছে দিশেহারা দক্ষিণাঞ্চল বাসী।

রুহুল আমিন ভূঁইয়া: দানব রুপে গর্জে উঠছে আড়িয়াল খাঁ আর সেই আগ্রাসনে ভিটে মাটি হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়ছে উপকূলবাসী। একের পর এক নদী ভাঙ্গনের শিকার হয়ে নিঃস্ব মানুষ গুলো পরিবার পরিজন নিয়ে বাঁচার আকুতিতে ছুটছে দ্বারে দ্বারে। শেষ সম্বল বসত ভিটা হারিয়ে নির্বাক হয়ে পড়ছে তারা। বর্ষার মৌসুম শুরুর সাথে সাথে আড়িয়াল খাঁ নদীর যৌবন ফিরে আসলে ফের শুরু হয় ভাঙ্গন। প্রতি বছর বর্ষার শুরুর সাথে সাথে ভাঙ্কানের প্রভাব বৃদ্ধি পায়। এ বছরও রেহাই পাচ্ছে না বরিশালের মুলাদী উপজেলার কাচিরচর ও রামারপোল গ্রামবাসী। কয়েকশত ঘর ভাঙ্গনের স্বীকার হতে যাচ্ছে। এমন অবস্থায় দিশেহারা খেটে খাওয়া মানুষগুলো। এবং কাচিরচর নদীর লঞ্চঘাট সংলগ্ন মাসুদ স্ব-মিল নামের একটি মিল ও অনেক গুলো গাছ রাতের আধারে আড়িয়াল খাঁ নদী ভাঙ্গনে স্বীকার হয়। এক রাতে এতে প্রায় আনুমানিক ১০ শতাংশ জমিসহ ছোট, বড় মাঝারি ধরনের অনেক গাছ নদী ভাঙ্কনে নিয়ে যায়। রাতের আধারে পার্শ্ববর্তী বাড়ির লোক বিষয়টি টের পেয়ে মিল মালিক মোঃ মোকছেদকে খবর দিলে তারা মিলের যাবতীয় যন্ত্রপাতি সরিয়ে নিতে সক্ষম হয়। মাসুদ স্ব-মিল মালিক মোকছেদ হাওলাদার জানায়, এক রাতে ভাঙ্কনের শিকার হয়েছে ১০ শতাংশ জমিসহ ২ লক্ষ টাকার গাছ যা নদীগভে হারিয়ে যায়। এবং স্ব-মিলের পাসে একটি মসজিদ ছিল তা ভাঙ্কার উপক্রম হয়েছে যা নদীর হাত থেকে রক্ষায় সরিয়ে নেওয়া হয়। কিন্তু সরিয়েও নিস্তার পায়নি আবারও ভাঙ্গনের স্বীকার হতে যাচ্ছে। কিন্তু কাচিরচর রামারপোল বাসীর বসবাসে ক্রমেই জনজীবন হুমকির সমূখীন হচ্ছে। দারিদ্র্য শ্রেনির মানুষ পরে গেছে হতাশায়। ঐ গ্রামের সন্তান রুহুল আমিন ভূঁইয়া সাবেক ডিসির কাছে ভাঙ্গন রোধের ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আবেদন করলে সাবেক ডিসি ড. মোঃ গাজী সাইফুজ্জামান গত ১৮ জুন ২০১৬ সালে বিষয়টি রোধ কল্পে প্রস্তাবটি গ্রহন করে। এবং বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডে বিষয়টি অবগত করেন। যার স্মারক নং ০৫,১০,০৬০০,১০১,৫০,০০১,১৬-৪৩০। পরবর্তীতে ড. মোঃ গাজী সাইফুজ্জামান বরিশাল থেকে বদলি হলে এর সুফল পাওয়া যায়নি। আর ভাঙ্গন রোধে সরকারী বেসরকারী ভাবে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় সম্প্রতি তা আরো তীব্র হচ্ছে। তবে ভাঙ্গন কবলিত এলাকার ভূক্তভোগী মানুষের দাবী প্রথমত ভাঙ্গন রোধে সরকারী বেসরকারী উদ্যোগ নিয়ে বাঁধ নির্মান করতে হবে এবং ভাঙ্গন কবলিত মানুষদের পুর্নবাসন করতে হবে।







সম্পাদক ও প্রকাশকঃ জামাল হোসেন
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মোঃ মোনাজ্জেল হোসেন খান
নির্বাহী সম্পাদক : নাঈম ইসলাম
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৭কে,মেহেরবা প্লাজা ৩৩ তোপাখানা রোড,ঢাকা
ফোনঃ 01947171171
মেইলঃdailyagomoni2018@gmail.com
প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।