করোনা মহামারীতেও লাদাখ সীমান্তে মুখোমুখি ভারত-চীন সেনাবাহিনী,চীনা যুদ্ধবিমান সীমান্তের কাছে

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃকরোনা মহামারীর আতংকের মধ্যেও গত ২৫ দিন ধরে লাদাখ সীমান্তে মুখোমুখি ভারত-চীন সেনাবাহিনী। এমন পরিস্থিতিতে পশ্চিম লাদাখ সীমান্তের কাছে চীনের যুদ্ধবিমান উড়তে দেখা গেছে। ভারত এতে উদ্বিগ্ন হয়ে সতর্ক দৃষ্টি রাখছে চীনের  কর্মকান্ডে।টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, পশ্চিম লাদাখের কাছাকাছি চীনের বিমান বাহিনীর এয়ার বেসে হামলার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে ১০ থেকে ১২টি যুদ্ধবিমান। হোটান ও গারগুনসা নামে দুটি এয়ার বেসে তৈরি রাখা হয়েছে ফাইটার জেটগুলো।

একটি সূত্র জানিয়েছে, সেখানে জে-৭ ও জে-১১ ফাইটার এয়ারক্রাফট রয়েছে যেগুলো ভারতীয় সীমান্তের ৩০ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত পৌঁছে যাচ্ছে। যদিও এই দূরত্বকে খুব বিপজ্জনক বলে মনে করা হচ্ছে না, তবুও ভারতীয় সেনাবাহিনী সতর্ক দৃষ্টি রাখছে। যেকোনো মুহূর্তে সীমান্তের একেবারে ঘাড়ের কাছে চলে আসতে পারে চীনের ওইসব যুদ্ধবিমান।

মে মাসের শুরুতেই পশ্চিম লাদাখের কাছে যুদ্ধবিমান পাঠিয়েছিল ভারত। সেই সময় ভারতের যুদ্ধবিমান ও চীনের হেলিকপ্টার আকাশে একেবারে কাছাকাছি চলে এসেছিল।লাদাখের কাছে হোটান নামে ওই এয়ারবেসে চীনের সঙ্গে যৌথ মহড়া চালায় পাকিস্তান। তাই ওই এয়ারবেসের ওপর প্রায় এক বছর ধরে ভারতীয় বিমান সেনাদের বিশেষ নজর রয়েছে।

উল্লেখ্য, ভারত ও চীনের প্রায় ৩৫০০ কিলোমিটার সীমান্তে উত্তেজনা বিরাজ করছে। সম্প্রতি লাদাখ ও উত্তর সিকিমের বিভিন্ন এলাকায় দুই দেশই সেনা ও যুদ্ধাস্ত্র মোতায়েন বাড়িয়েছে।ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলো প্রতিবেদনে জানিয়েছে, উপগ্রহের পাঠানো ছবিতে দেখা গেছে, লাদাখ সীমান্তে ব্যাপক সেনা তৎপরতা বাড়িয়েছে চীন। ছবিতে দেখা গেছে প্যানগং লেক থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে চিনা বিমান ঘাঁটিতে অস্থায়ী পরিকাঠামো নির্মাণ চলছে। এছাড়া সীমান্ত এলাকায় কয়েক হাজার সেনা বাড়িয়েছে দেশটি।







সম্পাদক ও প্রকাশকঃ জামাল হোসেন
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মোঃ মোনাজ্জেল হোসেন খান
নির্বাহী সম্পাদক : নাঈম ইসলাম
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৭কে,মেহেরবা প্লাজা ৩৩ তোপাখানা রোড,ঢাকা
ফোনঃ 01947171171
মেইলঃdailyagomoni2018@gmail.com
প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।